Young man jogging in a sunlit park, embodying adolescent fitness linked to reduced midlife health risks

কিশোর বয়সের ফিটনেস কম থাকলে মধ্যবয়সে হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে

জানুয়ারি ৩১, ২০২৪

গবেষণায় দেখা যায় কিশোর বয়সে শারিরিক ভাবে ফিট না থাকলে বয়স বাড়ার সাথে হৃদরোগ এবং বিপাকজনিত রোগের ঝুকি রয়েছে। এটি জাভাস্কিলা বিশ্ববিদ্যালয় এর একটি গবেষণা যা Scandinavian Journal of Medicine & Science in Sports এ প্রকাশিত হয়েছে। এ গবেষণাটি ৪৫ বছর ধরে চলেছে । ১২ থেকে ১৯ বছর, ৩৭ থেকে ৪৪ বছর, এবং ৫৭ থেকে ৬৪ বছর বয়সের মানুষের উপর এই গবেষণাটি করা হয়েছে। এই গবেষণায় ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, করোনারি হৃদরোগ, এবং কোমর পরিধি নিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

এই গবেষণার ফলাফল থেকে দেখা যায় যে কিশোর বয়সে শারীরিক ফিটনেস কম থাকলে ৬৪ বছর বয়স পর্যন্ত হৃদরোগ ও বিপাকজনিত রোগের ঝুকি বাড়ে। মেয়েদের ক্ষেত্রে কিশোর বয়সে শারীরিক ফিটনেস কম থাকলে মধ্যে বয়সে উচ্চ রক্তচাপের ঝুকি বেরে যায়। ছেলেদের ক্ষেত্রে কিশোর বয়সে কম শারীরিক পরিশ্রম করা, অলসতা করা এবং নমনীয়তা থাকলে মধ্য বয়সের শেষের দিকে কোমর এর পরিধি বাড়ার ঝুঁকি বাড়ে। এই গবেষণার ফলাফল বলছে যে, কিশোর বয়সে কম মোটা হওয়া, হৃদরোগ ও বিপাকজনিত রোগের ঝুঁকি কমাতে দারুণ ভাবে ভুমিকা রাখে। কিশোর বয়সে শারীরিক অবস্থা, বয়স বাড়ার সাথে হৃদরোগ এবং বিপাকজনিত রোগের ঝুঁকি নির্ধারণের একটি প্রাথমিক সূচক। এই তথ্য সুইডিশ সামরিক বাহিনির তালিকা থেকে তত্থ্য সংগ্রহ করে করা গবেষণা থেকে নেওয়া হয়েছে। যেখানে মুলত পুরুষ অংশগ্রহণকারীদের ওপর গবেষণা করা হয়েছে, যা এই গবেষণাকে আরও তথ্যবহুল করে।

গবেষণায় আরও দেখা যায় যে ইদানিং কিশোরদের মধ্যে শারীরিক সক্ষমতা ক্রমেই খারাপ হচ্ছে। কিন্তু এদের মাঝে এই বিষয় নিয়ে সচেতন হউয়ার উদ্বেগ খুবই কম। তরুণদের সক্রিও করতে এবং শারীরিক ভাবে ফিট রাখতে যে কারন গুলো বাধাগ্রস্থ করে এমন সব কারন দূর করতে হবে। কিশোরদেরকে শারীরিক ভাবে ফিট থাকায় সচেতন করতে এবং খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করার জন্য আরও উৎসাহিত করতে হবে।

হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ ইত্যাদি রোগ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য শারীরিক সুস্থতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই সুস্থতার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে – শ্বাস প্রশ্বাসের (কার্ডিওরেস্পিরেটরি) সক্ষমতা, পেশীরের সক্ষমতা (মাসকুলোস্কেলিটাল), এবং শরীরের গঠন। যেকোনো বয়সে নিয়মিত শরীরচর্চা করলে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ এমন বিপাকজনিত রোগের ঝুঁকি কমে। কিন্তু ছোটবেলা থেকেই ব্যায়াম বা খেলাধুলার অভ্যাস করলে এবং শারীরিক ফিটনেস ঠিক রাখলে বুড়ো বয়সে সুস্থ থাকা সহজ হয়।

আবু মোঃ এহসান

তথ্যসূত্র

Laakso, P. T. T., Ortega, F. B., Huotari, P., Tolvanen, A. J., Kujala, U. M., Jaakkola, T. T. (2024). The association of adolescent fitness with cardiometabolic diseases in late adulthood: A 45-year longitudinal study. Scandinavian Journal of Medicine & Science in Sports, 34(1), Article e14529. https://doi.org/10.1111/sms.14529