মেট্রো রেল স্টেশনের নকশা নিয়ে বুয়েটের প্রদর্শনী

জানুয়ারি ৫, ২০১৭
পদ্মা সেতুর পর মেট্রোরেল বাংলাদেশে নতুন স্বপ্নের নাম। সেই মেট্রো রেল নিয়ে মানুষের মনে হাজারো জল্পনা-কল্পনা। আশা করা হচ্ছে, ২০২৩ সালের মধ্যেই এর প্রথম নির্মাণ পর্ব সম্পন্ন হবে। ২০৩৫ সালের মধ্যে নগরবাসী উপভোগ করবে মেট্রো রেল সুবিধা।

কিন্তু কেমন হবে আসলে এই মেট্রো রেল? কর্মব্যস্ত যাত্রাপথে সত্যিই কি একটু স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলতে পারবে নগরবাসী? সরকারি তত্পরতায় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান জাইকার সহায়তায় শিগগিরই নগরজুড়ে শুরু হতে যাচ্ছে মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ।

শহরবাসীর প্রতিদিনের অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠবে যে স্টেশনগুলো, কেমন হচ্ছে সেগুলোর নকশা?
এ সকল প্রশ্নের উত্তর সন্ধানের একটি উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) স্থাপত্য বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা। সরকারের চলতি প্রজেক্টেরই একাংশ অর্থাত্ ৪টি স্থানের (ফার্মগেট, মতিঝিল, মিরপুর, শাহবাগ) স্টেশন নিয়ে কাজ করে শিক্ষার্থীরা।

সেসব স্টাডি নিয়ে গতকাল থেকে আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দ্য ঢাকার লা গ্যালারিতে শুরু হয়েছে বিশেষ প্রদর্শনী ‘লাইফ লাইন ফর ঢাকা’। যার আয়োজন করেছে বুয়েটের স্থাপত্য বিভাগ। প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালক মো. কায়কোবাদ। আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দ্য ঢাকার পরিচালক ব্রুনো প্লাস অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

আয়োজকরা জানান, “মেট্রোরেলের মত একটি প্রকল্প যেমন সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিতে পারে হাজারো নগরবাসীর জন্য, তেমনি সেটা শহরের সার্বিক অবস্থা এবং নগরবাসীর চাহিদাগুলো মাথায় রেখে না করা হলে পুরো উদ্যোগটিই ব্যর্থ হয়ে যেতে পারে। এ প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে এ বিষয়টি সবার সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে।

প্রদর্শনীটি চলবে ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত। সোম থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা এবং শুক্র ও শনিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা এবং বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদর্শনীটি খোলা থাকবে। সবার জন্য উন্মুক্ত।

– Techdesk